Tuesday, May 22, 2018

উপনিবেশ বিরোধী চর্চা - প্রথম যুগের সাম্রাজ্য তাত্ত্বিকেরা এবং ভারতউপমহাদেশের সম্পদ

১৬০০ সালে যে ইস্ট ইন্ডিয়া কোম্পানি তৈরি হল ব্রিটিশ মাটিতে, তার বহু আগে থেকে কিন্তু সলতে পাকানো হচ্ছিল সাম্রাজ্য ইচ্ছার।খুব প্রকাশ্যেই জ্ঞানীরা ব্রিটিশ সাম্রাজ্য বিস্তারের পরিকল্পনা পেশ করছিলেন। এদের মধ্যে অন্যতম রিচার্ড হাকলুইত এবং উইলিয়াম হার্বোর্ন - এদের কূটনীতিতে ভারের বিপুল সম্পদ ব্যবহারের ভাবনা ছিল। 
সে সময় ক্যাথলিক এবং মুসলমান বিরোধিতার জোর ঢেউ উঠেছিল গোটা ব্রিটেনজুড়ে। এই কাজে অন্যতম নেতৃত্বস্থানীয় ছিলেন হাকলুইত। ১৫৫৯ সালে প্রকাশিত হয় প্রিন্সিপ্যাল নেভিগেশনস - ব্রিটিশ সীমান্ত ছাড়িয়ে বাণিজ্য এবং সাম্রাজ্য বিস্তারের খুব প্রভাবশালী হাতিয়ার হয়ে উঠবে এটি। তিনি এই বইটি উতসর্গ করেন প্রথম এলিজাবেথের প্রধান সচিব ফ্রান্সিস ওয়ালয়ািঙ্ঘামকে। তিনি এশিয়ার ধনীদের নিয়ে কি করা যায় সেই রণনীতি বিশদে আলোচনা করেন। তাঁর প্রস্তাব ছিল ইসলাম এবং ক্যাথলিকদের ওপর সাম্রাজ্য করা দরকার। রানী মেরির স্বামী, স্পেনের ক্যাথলিক দ্বিতীয় ফিলিপ ইংলন্ডের রাজা ছিলেন। পরে তিনি স্পেন আর পর্তুগালের রাজা হন।
হাকলুইতের সিদ্ধান্ত ছিল বিশ্ব শাসন করতে তারা ভগবানের কাছে আদেশপ্রাপ্ত। ইংলন্ডের উচিত তার প্রাথমিক ক্যাথলিক শত্রু স্পেনের বিরুদ্ধে অস্ত্রসজ্জা করে সঠিক মুসলমান বন্ধু আর শত্রু নির্নয় করা। মার্টিন লুথার স্প্যানিশ আর অটোমমান সাম্রাজ্যকে এক শ্রেণীতে ফেলেছিলেন। ধ্রুপদী ব্রিটিশ এবং স্কটিস লেখকদের রোম সাম্রাজ্য ধ্বংসকারী বর্বর অটোমানের বিরুদ্ধে ক্ষোভ ছিলই। এলিজাবেথের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী উইলিয়াম হার্বোর্ন ১৫৮০ নাগাদ যুক্তি দেখালেন স্পেনিয়দের বিরুদ্ধে অটোমান-ব্রিটিশ সমঝোতা হলে শয়তানের দুই অঙ্গ পরস্পরের বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে মরবে এবং এটা আদতে ইংলন্ডের পক্ষে যাবে।
জোনাথন ইয়াকট, সেলিং এম্পায়ার - উইন্ডিয়া ইন মেকিং অব ব্রিটেন এন্ড আমেরিকা ১৬০০-১৮৩০ বইতে বলছেন, Harborne was to impress upon the sultan that the king of Spain now ruled much of Europe and "the whole Indias both east and west whence he draweth infiqite treasures, the sinews of war." Religious conflict among Protestants, Catholics, and Muslims was thereby bound up with notions of wealth-producing Indias।
Post a Comment