Saturday, June 29, 2013

সাম্রাজ্যবন্ধু- দ্বারকানাথ ঠাকুর এবং রামমোহন রায় - কলোনাইজেশন আন্দোলনের তাত্বিক, Rammohon & Dwarakanath - Theoretician of Colonization Movement in India

১৮২৯এর ৪ ডিসেম্বর সদাশয় বেন্টিঙ্ক সতীদাহ আইন বিরুদ্ধ ঘোষণা করলেন এর মাসছয়েকের মধ্যে পাদ্রি আলেকজান্দার ডাফের কলকাতায় পদাপর্ণ তারিখটি ২৭মে, ১৮৩০ উদ্দেশ্য, কলকাতায় নতুন যুবকদের মাধ্যমে খ্রিস্টধর্ম আর পাশ্চাত্য শিক্ষার পথ পরিষ্কার করা ১৯ নভেম্বর, ১৮৩০, দিল্লির সম্রাটের দেওয়া রাজা উপাধি আর উপঢৌকন নিয়ে রামমোহন রায় বিলেতের উদ্দেশ্যে রওনা হলেন উদ্দেশ্য তিনটি ১) বাঙলায় ইওরোপিয়দের, বিশেষকরে প্রবাদপ্রতীম অত্যাচারী নীলকরদের জন্য, আর ওয়েস্ট ইন্ডিজে যে সব দাস ব্যবসায়ী আগামীদিনের ১৮৩৩এর সনদে বেকার হওয়া আশংকা করছেন, তাঁদের সাদরে বাঙলার ডেকে বাঙলা-বিহারের গঙ্গার পলিবিধৌত ঊর্বরতম জমি কেনার অধিকার দানের সপক্ষে লড়াই জোরদার করা, ২) দিল্লির সম্রাটের মাসোহারা বৃদ্ধির আবেদন করা(যার জন্য তিনি রাজা উপাধি আর যথেষ্ট পরিমান নগদ অর্থও লাভ করেন)আর ৩) সতীদাহ পক্ষে ভারতীয় জনগণের আবেদনের বিরোধিতা দ্বিতীয়টির দৌত্য সফল না হলেও প্রথম আর তৃতীয়টিতে তিনি সফল হলেন
অনেক বছর ধরেই রামমোহন, দ্বারকানাথ আর তাদের বাঙালি এবং ইওরোপিয় সঙ্গীসাথীআত্মীয়রা বাঙলায় কলোনাইজোশন আন্দোলনের অন্যতম উদ্যোগীপুরুষ বিভিন্ন প্রগতিশীল সভা সমিতিতে এ নিয়ে জোরদার প্রচারও চালিয়েছেন রামমোহন-দ্বারকানাথ মহাত্মা বেন্টিঙ্কের স্বাক্ষর আর জোরদার সুপারিশ নিয়ে, রামমোহন-দ্বারকানাথেদের আন্দোলনের আবেদন-নিবেদন গিয়েছে ইংলন্ডের রাজদরবারে এই আন্দোলন সে দেশেও জোরদারভাবে চলছিল ইংলন্ডে রামমোহন সেই আন্দোলনকে আরও উদ্দেশ্যমুখী করে তুললেন শোনাযায়, কোম্পানি প্রসাদধন্য জেরিমি বেন্থামও রামমোহনের পক্ষে দাঁড়াবার কথা ভেবেছিলেন
এই তুঙ্গে ওঠা আন্দোলনের ফলেই ১৮৩৩এর সনদে ভারতে ইওরোপিয়দের জমিকেনার আইন প্রণীত হল বাঙলার বিবেক, ভারতের নবজাগরণের অগ্রদূত, রামমোহন রায়, আফিম আর নীলকরদের জমিকেনার অধিকারের সপক্ষে লড়াই করে আফিম আর নীল চাষীদের জীবন আরও দুর্বিসহ করে তুললেন বাঙলার চাষীদের জীবনে নেমে এল রামমোহন, দ্বারকানাথের আন্দেলনে পাকিয়ে তোলা দুর্বিপাকের ঘনঘটা কলোনাইজেশন আন্দোলন সাফল্যে ১৮৩৩এর সনদ আরও একটা বড় পরিবর্তন নিয়ে এল বাঙলার সমাজে- ওয়েস্ট ইন্ডিজে আখচাষে দাস প্রথা রদ হওয়াতে বিশ্ব দাস প্রথার রূপকারেরা বাঙলায় চলে এল, নীল চাষকে আরও রক্তাক্ত, আরও অত্যাচারময় করে তুলতে টম পেইনএর হাজার হাজার বই নিমেষে বিক্রি হয়ে যাচ্ছে কলকাতার বাঙলা বাজারে আমেরিকা থেকে আসা প্রথম দফার একটাকা দামের বই বাজারে পড়তে না পড়তেই বিক্রি হয়ে গেল এমন এক সময়ে, যার এক দশক আগে দুটাকা রোজগার করলেই কলকাতাবাসী নিজেকে স্বচ্ছল ভাবতেন দ্বিতীয় দফায় একটাকার বই বিক্রি হল চারটাকায় কলকাতার আলালদের সমাজ সংস্কার দেশের গ্রামীণদের লড়াইএর দিকে পিঠ ফেরানো মূলতঃ ইওরোপের প্রতি প্রণতি ঐতিহাসিকদের যুক্তি ইওরোপের নতুন মানবাধিকার আর অবাধ চিন্তার আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ডিরোজিওর ইয়ং বেঙ্গল কলকাতা বিদ্রোহে অনুপ্রাণিত হলেন সমস্ত যুক্তিই উপনিবেশের হাতে সযত্নে তৈরি করা যুক্তি যেন ইওরোপিয়দের একচেটিয়া, আর এশিয়রা মানসিকভাবে শিশুসুলভ, আদিম, এই তত্ব ক্রমশঃ তৈরি করার চেষ্টা চলছে বিশ্ব জুড়ে, বিংশ শতকে যা মোটামুটি মান্য
Post a Comment